সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৭:১৮ অপরাহ্ন

অস্থির বাজারে ধরাছোঁয়ার বাইরে চাল মুরগির দাম

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১৩ মার্চ, ২০২১
  • ১৪ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক:অস্থির বাজারে নতুন করে বেড়েছে চাল, পেঁয়াজ ও মুরগির দাম। সপ্তাহের ব্যবধানে এই তিনটি পণ্যের দাম বেড়েছে। এক কেজি পেঁয়াজ কিনতে ৪০ থেকে ৬০ টাকা লাগছে। অন্যদিকে কারন ছাড়াই বেড়েছে বস্তা প্রতি চালের দাম। তেলের দাম ও লাগামহীন।

অন্যদিকে আগের মতই বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে তেল, চাল, লেবুসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য। শুক্রবার (১২ মার্চ) সকালে রাজশাহীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

ক্রেতাদের অভিযোগ, মুরগি ও পেঁয়াজের সরবরাহ কম থাকার অজুহাতে দাম বাড়িয়েছেন বিক্রেতারা।

দেখা যায়, ভালো মানের মিনিকেট বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৭০ টাকা। ভালো মানের নাজিরশাইল চাল ৭০ টাকায়, মাঝারি মানের নাজিরশাইল চাল ৬৪ টাকায়, পাইজাম চাল ৫৬ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া নতুন ২৮ চাল বিক্রি হচ্ছে ৫৬ টাকায় ও পুরাতন ২৮ চাল বিক্রি হচ্ছে ৫৮ টাকা দরে।

বাজার দুটিতে প্রতি কেজি চিকন মসুর ডাল বিক্রি হচ্ছে ১১০-১২০ টাকায়। আর মোটা মসুর ডাল ৭৫-৯০ টাকায় ও মুগ ডাল ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কয়েকমাস ধরে তেলের বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে। বোতলজাত সয়াবিন তেল লিটার প্রতি ১৩৪ টাকা ও খোলা সয়াবিন তেল লিটার প্রতি ১১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতি লিটার পাম ওয়েল বিক্রি হচ্ছে ১০৪ টাকায়।

তিন প্রকার ডিমের মধ্যে ব্রয়লার মুরগির ডিম পাইকারিতে ডজন বিক্রি হচ্ছে ৯০-৯৫ টাকা দরে। আর খুচরা হালি বিক্রি হচ্ছে ৩০-৩৫ টাকা দরে। অন্যদিকে হাঁসের ডিম খুচরায় হালিতে ৫৫ টাকায় ও দেশি মুরগির ডিম হালিতে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে মুরগির দাম বেড়েই চলছে। প্রতি কেজি ব্রয়াল মুরগির দাম এখন ১৫০ টাকা। দুই মাস আগে ১২০ কেজিতে বিক্রি হত।পাকিস্তানী মুরগি কেজিতে বিক্রি হচ্ছে ৩৫০-৩৭০ টাকা। লেয়ার মুরগি ২৯০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে অপরিবর্তিত রয়েছে গরু ও খাসির মাংসের দাম। বাজারে প্রতি কেজি খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা, বকরির মাংস ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা, গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৫৩০ থেকে ৫৫০ টাকা।

বাজারে সবজির মধ্যে ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ২৫-৩০ টাকা দরে। বাঁধাকপিও একই দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে লাউ বিক্রি হচ্ছে পিস প্রতি ৫০-৬০ টাকায়। শিম ৩০ টাকা (প্রকার ভেদে), মুলা ১৫ টাকা, টমেটো ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া আলু বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা কেজিতে।

করলা ৮০ টাকা, বেগুন ৫০ টাকা, শসা ৪০ টাকা, ধুন্দল ৪০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা, কাঁচামরিচ ৬০ টাকা, শালগম ৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া পটল ৪০ ও বরবটি ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মিষ্টি কুমড়া সাইজভেদে ৪০-১২০ টাকা এবং মৌসুমি শাক আঁটি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ১৫ থেকে ২০ টাকা দরে।

অস্থিতিশীল বাজারের কারনে সাধারন ক্রেতারা পড়ছেন বিপাকে, স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য চিন্তার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছ এই বাজারদর।
নির্ভীক সংবাদ ডটকম

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 nirviksangbad24.com
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin