এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ: সাড়ম্বরে পালিত হলো রজতজয়ন্তী


নির্ভীক সংবাদ24   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ৩১ জানুয়ারী, ২০২১

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ৪জানুয়ারী ২০২১ পথ চলার পচিশ বছর ‘রজতজয়ন্তী’ পালন করেছে অত্যন্ত সাড়ম্বরে সরকারের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীদের উপস্থিতিতে।

স্বল্প খরচে মানসম্মত উচ্চ শিক্ষা প্রদানে ইতিমধ্যেই দেশে – বিদেশে এইউবি তার নাম সমুজ্জ্বল করেছে। এখান থেকে পাশকৃত শিক্ষার্থীবৃন্দ দক্ষতা ও সৃজনশীলতার পরিচয় দিচ্ছে নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে। এই সব কিছুর পিছনে কাজ করেছে দেশ বরণ্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড: আবুল হাসান মোহাম্মদ সাদেক স্যারের নিরলস প্রচেষ্টা ও দুর্দমনীয় কর্মস্পৃহা ।

৪ জানুয়ারি রজতজয়ন্তী উপলক্ষে বছরব্যাপী অনুষ্ঠান মালার শুভ উদ্ধোধন করেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জবাব আসাদুজ্জামান খান কামাল। জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের সম্পূর্ণ বিনা খরচে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ করে দেবার জন্য এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর ভুয়সী করেন মাননীয় মন্ত্রী সেইসাথে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সাথে অত্র ইউনিভার্সিটির কেউ জড়িত কখনোই জড়িত ছিলো না বিধায় উনার সন্তোষ প্রকাশ করেন।

৫ জানুয়ারী এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর রজতজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ পালনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের। তিনি সরকারের দেওয়া নানা নানামুখী সূযোগ কাজে লাগিয়ে তারুণ্যের অমিত শক্তি ও সম্ভাবনাকে চাকরির চৌহদ্দিতে আটকে না রেখে তরুণদের চাকুরী করার মানসিকতা ত্যাগ করে চাকুরী দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হতে বলেন।

প্রধান অতিথি আরো বলেন জীবন মানেই যুদ্ধ। যে জীবনে যুদ্ধ নেই, চ্যালেঞ্জ নেই সেটা প্রকৃত জীবন নয়। চলার পথে নানারকম বাঁধা আসবে, গতি হারাবে ঝড়ে। কিন্তু এই সাময়িক ছন্দ পতনে থমকে গেলে চলবে না। পদ্মা সেতু প্রকল্পের উদহারন টেনে তিনি বলেন বিশ্বব্যাংকের দূর্নীতির অপবাদের বিপরীতে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রধানমন্ত্রী প্রমাণ করেছেন বাঙ্গালী বীরের জাতি। তিনি মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার অদম্য প্রাণশক্তির ভুয়সী প্রশংসা করে বলেন তিনি জয় করেছেন বাংলাদেশের সমান সুনীল সমুদ্রসীমা , সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত করেছেন ব্লু ইকোনমির। পশ্চিমা পরাশক্তির কটাক্ষ করে বলা এক সময়ের তলা বিহীন ঝুড়ি এখন বিশ্বের বিস্ময়। তিনি নতুন প্রজন্ম কে মাদক, সাইবার অপরাধ, আকাশ সংস্কৃতির নেতিবাচক দিক থেকে দূরে থাকার আহ্বান জানান।

রজতজয়ন্তী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বলেন করোনা মহামারী বিশ্বকে থমকে দিয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও তার প্রভাব পড়েছে। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে গবেষণা কাজে অধিকতর গুরুত্ব প্রদানের কথা বলে তিনি সম্বৃদ্ধ আগামী নির্মাণের চলমান যাত্রায় সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান । উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা ও উপাচার্য এমিরেটাস অধ্যাপক ড: আবুল হাসান মোহাম্মদ সাদেক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো যুক্ত হন আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি এম পি, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড: জাফর সাদেক। এছাড়াও এই অনুষ্ঠানে শিক্ষক কর্মকর্তা, সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

কে এম মনিরুল ইসলাম
সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান
ইংরেজী বিভাগ
এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

Total view = 120