ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল ক্ষুব্ধ রাজশাহীবাসী


নির্ভীক সংবাদ24   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

মোঃমাসুদ আলী(পুলক)রাজশাহী: রাজশাহী মহানগরীর আমচত্বর এলাকার বাসিন্দা আয়েশা খাতুন। গত জুলাই মাসে তার বিদ্যুৎ বিল এসেছিলো ২ হাজার ৪০৮ টাকা। আগষ্টে বিল বেড়ে হয় ৪ হাজার ৭১১ টাকা। একে মাসের ব্যবধানে এত বিল বেড়ে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে কোন সদুত্তর দিতে পারেননি নর্দান ইলেক্ট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেডের (নেসকো) কর্মকর্তারা।
শুধু আয়েশা খাতুন নয়, ঘরে ঘরে যাচ্ছে এমন ভুতুড়ে বিল। বাড়তি এই বিদ্যুৎ বিল নিয়ে ভোগান্তিতে পড়েছেন গ্রাহকরা। ভুতুড়ে বিল পরিশোধ করতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন তারা। এতে নগরবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে। ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা রোববার নেসকোর কার্যালয় ঘেরাও করে মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করেছেন।
নগরীর বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, হঠাৎ করেই গত মার্চ মাস থেকে অস্বাভাবিকহারে বেড়েই চলেছে বিদ্যুৎ বিল। নগরীর হাজার হাজর গ্রাহক পড়েছেন এই সমস্যায়। কোন কোন গ্রাহকের বিলের পরিমাণ প্রতি মাসে ১ থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। আবার কোন কোন গ্রাহকের বিলের পরিমাণ হয়েছে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। এই বিলকে খুব অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন তারা।
গ্রাহকরা বলছেন, করোনাকাল শুরু হওয়ার পর থেকেই অস্বাভাবিকহারে বিদ্যুৎ বিল বাড়তে শুরু করেছে। মিটার রিডাররা ঠিকমতো মিটার না দেখে গড় বিল করার জন্যই এই সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে তাদের। ফলে বাড়তি এই বিলের বোঝা বইতে হচ্ছে গ্রাহকদের। ভুতুড়ে এই বিল থেকে কবে মুক্তি পাবেন তা জানা নেই কারও।
কোন কোন গ্রাহক অভিযোগ জানাচ্ছেন নেসকোর কার্যালয়ে। কিন্তু কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না না বলেও অভিযোগ আনছেন তারা। বিলের পাশাপাশি গত কয়েক মাস ধরেই চলছে বিদ্যুতের লুকোচুরি খেলা। বারবার বিদ্যুৎ আসা-যাওয়ায় ভোগান্তি বেড়েছে বহুগুণ। বিদ্যুৎ ঠিকমতো না থাকায় গরমে নাকাল হয়ে পড়েছেন নগরবাসী। এর পাশাপাশি বেড়েছে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স পণ্যের ক্ষতির আশঙ্কা
করছে রাজশাহীবাসী।
নির্ভীক সংবাদ24ডটকম

Total view = 264