তরুণ সাংবাদিক ফরিদ আহমেদ আবির এর শুভ জন্মদিন আজ


নির্ভীক সংবাদ24   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ২১ নভেম্বর, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক : কোনো জনপদের চিন্তাধারার প্রতিনিধি, কণ্ঠস্বর, বিবেকের অনুশাসন হিসেবে কবি, শিল্পী, সাহিত্যিক, সাংবাদিক সৃজনশীল প্রতিটি মানুষই ভূমিকা রাখেন। তেমনি একজন তরুন সাংবাদিক সময়ের সাহসী তরুন সাংবাদিক ফরিদ আহমেদ আবির। এ সময়ের সাহসী সংগঠন রাজশাহীর ‘দুর্গাপুর মডেল প্রেসক্লাবের’ সাধারন সম্পাদক।

দৈনিক গণকন্ঠ পত্রিকার রাজশাহী প্রতিনিধি ও নাগরিক কন্ঠের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান এবং জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল নির্ভীক সংবাদের সম্পাদক ও প্রকাশক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তরুন সাংবাদিক
ফরিদ আহমেদ (আবির) এর আজ ২১ নভেম্বর শুভ জন্মদিন।

যেখানে অন্যায় অত্যাচার, অপরাধ, দুর্নীতি, দুঃশাসন সেখানেই নির্ভীক, সাহসী, এক সাংবাদিকের পদচারণ। যে কোন মূল্যেই তিনি তুলে নিয়ে আসবেন ঘটনার অন্তরালের মূল ঘটনা। অপরাধ ও অপরাধী যত গভীরেই থাকুক না কেন সেখান থেকেই তিনি তার চতুরতা, একনিষ্ঠ কর্মদক্ষতা দিয়ে টেনে বের করেন লুকানো সেইসব অপরাধীদের। তাদের মন্দ কাজের সকল আমলনামা। তুলে ধরেন দেশ ও জাতীর সম্মুখে। যিনি সত্যর সন্ধানে রত নির্ভীক সাংবাদিক, জীবনে সুখ বিলাস লোভে মোহ ত্যাগের প্রতীক। সহজ সরল জীবন ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে জিহাদি। অপরাধ মুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার অপ্রতিদন্ধি। অন্যায়ের সাথে কখনোই আপোষ করে না যিনি তিনি আর কেউ নয়। তিনি এ সময়ের প্রিয় প্রতিবাদী লেখক ও সাংবাদিক সকলের প্রিয় ব্যাক্তি ফরিদ আহমেদ আবির।

আজকের আকাশে অনেক তারা, দিন ছিল সূর্যে ভরা। আজকের জোসনাটা আরও সুন্দর,সন্ধ্যাটা আগুন লাগা। আজকের পৃথিবী তোমার জন্য, ভরে থাকা ভাল লাগা। মুখরিত হবে দিন গানে গানে, আগামীর সম্ভাবনা। আপনি এই দিনে পৃথিবীতে এসেছন তাই শুভেচ্ছা আপনাকে, তাই অনাগত খন হোক আরও সুন্দর উজ্জ্বল দিন কামনায়।

আজকের এই দিনে এক শুভ ক্ষণে ১৯৯৭ সালের ২১ শে নভেম্বর রাজশাহী জেলার দূর্গাপুর উপজেলার ১ নং নওপাড়া ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের মোল্লা বাড়ির এক সম্ভান্ত পরিবারে মায়ের কোল জুড়ে ভূমিষ্ঠ হয় এক নবজাতক শিশু।
আর সেই নবজাতক শিশুটি আজকের স্বনামধন্য লেখক ও সাংবাদিক তিনি সকলের প্রাণ প্রিয় এ সময়ের সাংবাদিকতায় রাজশাহীর কয়েকজন সাংবাদিকের মধ্যে ফরিদ আহমেদ আবির নামটি বেশ পরিচিত ও অন্যতম।

সাংবাদিকতার শুরুটা ২০১৩ সালে করেন তিনি। ছাত্রজীবন থেকেই বিভিন্ন পত্রিকায় তার কবিতা দিয়ে লেখা লেখির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন তিনি। আর সেই থেকেই সাংবাদিকতার হাতেখড়ি পেয়েছিলেন আর পাশে ছিলেন অনুপ্রেরণায় গুনী সাংবাদিকগণের মধ্যে, মিজান মাহি,শাহাজামাল পিকে, রায়হানুল ইসলাম, আব্দুল খালেক, গোলাম রসূল, রবি রাজ,আমিনুল ইসলাম, বাবুল হোসেন,তুহিন, মোফাজ্জল হোসেন মায়া, মাসুদ রানা রাব্বানী,আবু কাওসার মাখন,সামসুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর, নূরে ইসলাম মিলন, আবিদ হাসান সানু,মাসুদ আলী পুলক,বাবু,আব্দুর রাজ্জাক, মশিউর রহমান, এস.এম. বিশাল,আমানুল্লাহ্ আমান, আল-আমিন, এর মতো অনেক সাংবাদিকেরা । সাংবাদিকতার মত মহান পেশা ছেড়ে অন্য কিছুই চিন্তা বা ভাবনা ভাবতে চান না এই তরুন সাংবাদিক ।

সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি একজন তরুণ উদ্যোক্তা এক সূত্রে জানা যায়“সেবা প্লাস ফাউন্ডেশনের” প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি,সমাজের অসহায়,সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের নিয়ে কাজ করেন ।

তরুন এই সাংবাদিকের, বাচন ভঙ্গি, শুদ্ধ উচ্চারণ, উত্তম চারিত্রিক গুণাবলী, ভদ্র, প্রাণবন্ত ও ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন একজন মানুষ। সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হল তার সৃষ্টিশীলতা বা সঞ্জননই ক্ষমতা, যা হল মৌলিক ভাষিক এককগুলিকে সংযুক্ত করে অসীম সংখ্যক বৈধ বাক্য সৃষ্টির ক্ষমতা। প্রকাশভঙ্গী নম্র ও কোমল আচরণের মানুষকে সবাই ভালোবাসে, সমীহ করে আর তাই তিনি সকলের কাছে সমান সমাদৃত। কোমল আচরণের দ্বারা মানুষের চারিত্রিক মাধুর্যটা প্রকাশ পায়। পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে বেশ পছন্দ করেন।

ফরিদ আহমেদ আবির জানান, তার প্রিয় রঙ নীল। খেতে ভালবাসেন দেশীয় যেকোনো খাবার। প্রিয় ফল আম। প্রিয় ফুল শিউলি,আর জবা। পছন্দের পোশাক জিন্স-টি শার্ট ও পায়জামা-পাঞ্জাবী। প্রিয় লেখক কাজী নজরুল ইসলাম,হুমায়ন আজাদ,শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, হুমায়ুন আহমেদ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। প্রিয় ঋতু বর্ষা। বই পড়া তার একটি বড় অভ্যাস। অবসরের বেশিরভাগ সময়ই কাটে বই পড়ে।

গান শুনতে খুব পছন্দ করেন। পছন্দের শিল্পী জর্জ মাইকেল, হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, । হলিউড মুভির প্রতি দুর্বলতা রয়েছে। পছন্দের অভিনেতা রনবির কাপুর।
ঘুরে বেড়াতে প্রচন্ড ভালোবাসেন। পেশাগত ও গবেষণার কাজে এরইমধ্যে দেশের প্রায় ৩৫ খানেক জেলা চষে বেড়িয়েছেন। তবে সবচেয়ে পছন্দের স্থান রাজশাহী নিজের বাড়ি।

জন্মদিনের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন সাধারণত কর্মস্থলেও জন্মদিনের আয়োজন থাকে। আর সন্ধ্যায় বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা।
ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত । সবসময় ইতিবাচক মানসিকতা পোষণ করেন এই লেখক ও সাংবাদিক। অল্প বয়সে এতো এতো সাফল্যের পেছনের সূত্র মনে করেন ‘ইতিবাচক থাকা’কে। দেশকে নিয়ে প্রচন্ড আশাবাদী তিনি। সমৃদ্ধ এবং উন্নত এক দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেন।

Total view = 291