• সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
মান্দায় ভূমিহীনদের জমি রক্ষার্থে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ বিভিন্ন সেবা নিয়ে ফের মাঠে নামছে জামিল ব্রিগেড নাচোলের ওসি সেলিম রেজার অশ্রুসিক্ত বিদায়; নতুন ওসি মিন্টু রহমানের যোগদান রাজশাহীতে ডিবি’র অভিযানে ইয়াবাসহ কুখ্যাত নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নীলফামারীতে ক্ষুদ্র কাপড় ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির উদ্যোগে কম্বল বিতরণ তিন দিনেও মামলা রেকর্ড করেনি পুলিশ সন্ত্রাসী কায়দায় এক কৃষকের দেড় বিঘা জমির শরিষা লুট করোনা আক্রান্ত রাসিক মেয়র লিটনের সুস্থতা কামনা করেছেন আরইউজে নেতৃবৃন্দ কেশরহাটে মেডিসিন কর্ণারের উদ্বোধন নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীদের সমর্থন প্রমাণ হলে পদত্যাগ করবো এমপি ডা. মনসুর চেয়ারম্যান সুমনের নেতৃত্বে ভারশোঁ ইউপি উন্নয়নের মহাসড়কে



বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ থাইল্যান্ডের আয়ুথায়া ঐতিহাসিক উদ্যান

Reporter Name / ৩১ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২২



নির্ভীক সংবাদ ডেস্কঃ

জাতিসংঘের ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ঘোষিত হওয়ার ৩০তম বছর উদযাপন করছে থাইল্যান্ডের আয়ুথায়া ঐতিহাসিক উদ্যান। ৪,৮০০,০০০ বর্গমিটার বিস্তৃত এই উদ্যান ১৩ ডিসেম্বর, ১৯৯১ তারিখে তিউনিসিয়ার কার্থেজে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ কমিটির সভায় বিশ্ব ঐতিহ্য হিসাবে ঘোষিত হয়েছিল। সংবাদ সূত্র: A24 News Agency

বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের স্থান হিসাবে উদ্যানটির ৩০তম বছর উদযাপন করার জন্য নাখন সি আয়ুথায়া প্রদেশ ১৭ থেকে ২৬ ডিসেম্বর ২০২১ পর্যন্ত “ইয়োর ইয়স ই ফা আয়ুথায়া মোরাদোক লোক” নামে একটি বৃহৎ আকারের অনুষ্ঠান আয়োজন করছে। ইভেন্টটিতে থাকছে ৮ কিলোমিটার দীর্ঘ প্যারেড, একটি সাংস্কৃতিক ক্ষেত্র, থাই লাইফস্টাইলের বুথ, বোট রোলিং, ট্রাম থেকে র্শনীয় স্থান দেখা, সাংস্কৃতিক শো এবং লাইট অ্যান্ড সাউন্ড শো। এখানে পর্যটকরা ঐতিহ্যবাহী থাই পোশাক ভাড়া নিয়ে অনুষ্ঠানটি উপভোগ করতে পারবেন।

ফাতছারা ফুসাংগা নামের এক পর্যটক জানান তার অনুভূতির কথা, ”আমি এখানে এসেছি কারণ আমি থাই সংস্কৃতি এবং আয়ুথায়া খুব পছন্দ করি। আমি অনুভব করি যে এই সব জিনিস চলে যাবে। কিন্তু এটা বিশ্ব ঐতিহ্য স্থান হওয়ায় এটা টিকে থাকবে। এবং নুতন প্রজন্ম এটাকে থাইল্যান্ডের বিশ্ব ঐতিহ্য বলে জানবে, এটা থাইল্যান্ডের শোভা। যেটাতে আমি সবচেয়ে বেশি মুগ্ধ হয়েছি তা হলো পরিবেশ এবং ড্রেস কোড। এটা হলো এমন কিছু যা আমি পছন্দ করি। এখানে আসতে পেরে আমি খুশি। যদিও আজকে অনেক গরম এবং পোষাটির অনেক বাড়তি অংশ রয়েছে কিন্তু আমি এখানে প্রবেশ করার পর যখন দেখলাম সবাই এটা পরে আছে এবং পছন্দ করছে, আমার আর এটা পরতে অদ্ভুত লাগছে না। ”

াই খাবারও খুব পছন্দ করেছেন ফুসাংগা। তিনি বলেন, আপনি যদি জিজ্ঞেস করেন এটা মজার কারণ থাই স্ট্রিট ফুড স্বতন্ত্র এবং স্বকীয়। এখানে থাই খাবার, স্থান, পরিবেশ সব একসাে মিলেছে। এবং এমন পরিবেশ পাওয়া বিরল।

উদ্যানে ভিড় করেছেন বিদেশী পর্যটকরাও। তেমনি একজন সাইমন ভেলাস্কো যিনি জার্মানির পর্যটক। ”আমি জার্মানী থেকে এসেছি এবং হ্যাঁ এটা আমি পছন্দ করছি। অনুষ্ঠানটি অনেক বড়। আমি এখানে শুধু একটা ঐতিহাসিক উদ্যান ভ্রমণ করতে এসেছিলাম কিন্তু আমি এখানে সব আলোর ঝলকানি দেখতে পাচ্ছি এবং সব ছোট দোকান ও খাবার। আমি আসলেই জায়গাটা পছন্দ করেছি। আর হ্যাঁ আমি উপভোগ করছি। এটা চমৎকার এবং শান্তিপূর্ণ একটি জায়গা।

নির্ভীক সংবাদ ডটকম। 




আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category