• শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন



শততম টি-টোয়েন্টিতে জয়ের আনন্দে ভাসছে টাইগারা

Reporter Name / ৫৬ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই, ২০২১



ক্রীড়া ডেস্ক : জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নিজেদের ১০০তম টি-টুয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। হারারেতে স্বাগতিকদের দেয়া ১৫৩ রানের লক্ষ্য বাংলাদেশ তাড়া করে ১৮.৫ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে।

বৃহস্পতিবার হারারে স্পোর্টস ক্লাবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-২০তে টস জিতে আগে ব্যাট করে ১৯ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান সংগ্রহ করতে সমর্থ হয় জিম্বাবুয়ে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেট হারিয়ে ৭ বল হাতে রেখেই ১৫৩ রান করে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

২০০৬ সালে শাহরিয়ার নাফিসের নেতৃত্বে টি-২০ ফরম্যাটে বাংলাদেশে তাদের প্রথম ম্যাচটি খেলেছিল এই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।  ম্যাচটি ৪৩ রানে জিতেছিল বাংলাদেশ।  ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছিলেন  মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

১৫৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামে নাইম শেখ ও সৌম্য সরকার।  পাওয়ার প্লেতে দুই অর্ধে বাংলাদেশ ছিল দুই রকম। প্রথম ৩ ওভারে আসে কেবল ৯ রান, পরের ৩ ওভারে ৩৪। দুই ওপেনারই সময় নিচ্ছেন। প্রথম আট ওভারে খেলেছেন ১৯টি ডট বল। এক-দুই নিয়ে খেলছেন। নিজে জোনে বল পেলে মারছেন বাউন্ডারি। মন্থর ব্যাটিংয়ে ৪৪ বলে এসেছে তাদের জুটির পঞ্চাশ।

বাংলাদেশের হয়ে টি-২০তে রেকর্ড ওপেনিং জুটি উপহার দিলেন সৌম্য সরকার এবং নাঈম শেখ। তাদের জুটি তিন অংক ছুঁয়েছে। এর আগে টি-২০তে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ওপেনিং জুটি ছিল ৯২। গত বছর ঢাকায় এই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ওই জুটি গড়েছিলেন তামিম ইকবাল ও লিটন দাস।

শুরুতে তার ব্যাটিংয়ের ধরণ দেখে মনে হচ্ছিল যত দ্রুত খেলাটা শেষ করা যায় সেটিই ভাবছেন! শেষে অধিনায়কের ১২ বলে ১৫ রানের ইনিংসটি থামে রান আউটে।

এরপর ব্যাটে আসেন নুরুল হাসান সোহান। নাইম শেখের অপরাজিত ৬৫ ও সোহানের অপরাজিত ১৬ রানের ইংনিসে ৮ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ।

এর আগে টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমে ওপেনিং বোলিংয়ে আসেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। পরের ওভারেই মুস্তাফিজুর রহমান বল হাতে পান সফলতা। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে তাদিওয়ানাশে মারুমানিকে ৭ রানে মাঠছাড়া করেন বাংলাদেশি পেসার। ডিপ মিডউইকেট থেকে দৌড়ে এসে দুর্দান্ত ড্রাইভে ক্যাচটি ধরেন সৌম্য সরকার। তাতে ১০ রানে ভাঙে উদ্বোধনী জুটি।

নিজের শেষ ওভারে ফিরে জোড়া উইকেট নিয়ে জিম্বাবুয়েকে থামালো মুস্তাফিজুর রহমান। দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করেন রিচার্ড এনগারাভাকে। পরের বলেই শেষ হয়ে যেতে পারত জিম্বাবুয়ের ইনিংস। কিন্তু ব্লেসিং মুজারাবানির ক্যাচ গ্লাভসে জমাতে পারেননি নুরুল হাসান সোহান। পরের দুই বলে জিম্বাবুয়ের ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান মারেন দুটি বাউন্ডারি। ওভারের শেষ বলে তাকে বোল্ড করে দেন মুস্তাফিজ। এক ওভার বাকি থাকতে ১৫২ রানেই গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

নির্ভীক সংবাদ ডটকম।




আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category