• মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০৮:০৬ অপরাহ্ন



দুর্গাপুরে অবৈধ পুকুর খননের দায়িত্বে কে এই সুজন?

Reporter Name / ৩০ Time View
Update : শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১



মশিউর রহমান,দুর্গাপুর: সরকারের ভূমি আইন উপেক্ষা করে ও হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্বেও রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার পাঁচুবাড়ী বাজারস্থ বিলে প্রায় ১০ বিঘা ফসলি জমিতে পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে। এ পুকুর খননের ফলে চারপাশের অনেক কৃষকের বিস্তীর্ণ ফসলি জমির দীর্ঘমেয়াদি ফসল উৎপাদনে মারাত্মক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

এলাকাবাসীরা অভিযোগ করে বলেন, সুজন ও আজাদ স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীর যোগসাজশে সরকারি নিয়ম-নীতি না মেনে ফসলি জমিতে ভেকু মেশিন দিয়ে গভীর করে জমির চারদিকে পাড় বেধে পুকুর খনন করছেন। আবার এসব মাটি স্থানীয় এক ভেকু মেশিন মালিকের কাছে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে বিক্রি করেন। তিনি সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে পুকুর খনন করে মাটি ট্রাক্টরে বহন করে বিক্রি করছেন বিভিন্ন জায়গায়।

গত কয়েক বছর দুর্গাপুর উপজেলা জুড়ে অপরিকল্পিত ভাবে অবৈধ পুকুর খননের কারনে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষা মৌসুমে বন্যার পানিতে স্কুল প্রতিষ্ঠান, পানবরজসহ ডুবে যায় এলাকার ফসলি জমি।

সরেজমিনে দেখাগেছে, দুর্গাপুর উপজেলার পাঁচুবাড়ী বাজারস্থ তিন ফসলি জমিতে পাঁচুবাড়ী গ্রামের সালামের ছেলে সুজন(২৮) ও আক্তারের ছেলে আজাদ(৪০) এর নেতৃত্বে চলছে অবৈধ পুকুর খনন।

ফলে সরকারি রাস্তায় দুর্ভোগ সৃষ্টি করে যানবাহক ও রাস্তায় চলাচলকারী পথোচারীদের পড়ছে হচ্ছে চরম বিড়ম্বনায় এলকার মানুষের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে তাদের মনে একটি প্রশ্ন কে এই সুজন? সংক্লিষ্ট প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে, সরকারি কোটি টাকার রাস্তার ক্ষতি করে চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধ পুকুর খননের মাটি বিক্রির অবৈধ ব্যবসা।

অবৈধ পুকুর খননকারী ও ভেকুমেশিন দালাল চক্রের মূলহোতা এই সুজন ট্রাক্টর দিয়ে এলাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়কে চড়া দামে পুকুর খননের মাটি বিক্রয় করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা বিষয়টি একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

ভূমি আইন উপেক্ষা করে কৃষি জমিতে পুকুর খননের বিষয়ে সুজন ও আজাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা এ ব্যাপারে কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, কৃষি জমিতে ভেকু মেশিন দিয়ে এভাবে মাটি কেটে পুকুর খননের কারণে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ হওয়ার আশংকা রয়েছে। অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।

চলবে…..( চোখ রাখুন পরের সংবাদে)




আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category